সিসিএ ফাউন্ডেশনের জাবি চ্যাপ্টার আহ্বায়ক হাবিব সদস্য সচিব সাজু

স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন সাইবার ক্রাইম অ্যাওয়ারনেস ফাউন্ডেশনের জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) চ্যাপ্টার গঠন হয়েছে।  শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয়ের জহির রায়হান মিলনায়তনের সেমিনার কক্ষে ‘চ্যাম্পিয়ন মিটআপ অ্যান্ড লিডারশিপ ট্রেনিং’ শীর্ষক কর্মশালায় চ্যাপ্টারের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়।

কেন্দ্রীয় কমিটির আহ্বায়ক কাজী মুস্তাফিজের উপস্থিতিতে ২০১৮ সনের জন্য আগামী এক বছর মেয়াদি ৩১ সদস্যের কমিটির ঘোষণা দেন স্টুডেন্ট সেলের সমন্বয়ক মো. আবু সায়েদ (বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং, জাবি)।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারি প্রক্টর ও বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান ড. শরিফ হোসেন নবগঠিত এই কমিটির উপদেষ্টা। গণিত বিভাগের শিক্ষার্থী মো. আহসান হাবিবকে আহ্বায়ক এবং বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের সাজেদুল ইসলামকে সদস্য সচিব হিসেবে মনোনীত করা হয়েছে।

এছাড়াও যুগ্ম আহ্বায়ক পদে মনোনীত হয়েছেন আহসান জাজিব, সঞ্জয় বিশ্বাস , সাবরিনা জামান ও সুভ্র সাহা। বিশ্ববিদ্যালয়ের আরো ২৫ জন শিক্ষার্থীকে এই কমিটির সদস্য করা হয়েছে।

চ্যাপ্টারের চ্যাম্পিয়নদের জন্য দিনব্যাপী কর্মশালা সকালে উদ্বোধন করেন জাবির পদার্থ বিভাগের অধ্যাপক বিশিষ্ট প্লাজমা বিজ্ঞানী ড.এ এ মামুন। তিনি বলেন, প্রতিদিন নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবন হচ্ছে। এর ভালো ও খারাপ দুটো দিকই আছে। তরুণ প্রজন্ম  নিজেরা প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার জানতে হবে এবং অন্যদের জানাতে হবে। কারণ সাইবার অপরাধ নিয়ন্ত্রণে সচেতনতার বিকল্প নেই।

কর্মশালায় সাইবার অপরাধ-নিরাপত্তা ও সুরক্ষা বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন সাইবার নিরাপত্তা গবেষক মো. মেহেদী হাসান। উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য তানজিয়াহ খানমসহ অনেকে।