সাইবার অপরাধ প্রতিরোধে পুলিশের সক্ষমতা যথেষ্ট নয়: আইজিপি

ঢাকা: নবনিযুক্ত পুলিশ প্রধান (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেছেন, সাইবার অপরাধ মোকাবেলা বর্তমান বিশ্বে পুলিশের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। বাংলাদেশ পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি), পুলিশ ব্যুরো ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)সহ বিভিন্ন শাখায় সাইবার অপরাধ তদন্তে আলাদা বিভাগ আছে। কিন্তু তা যথেষ্ট মনে করছি না।

বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ সদর দফতরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন। দায়িত্বগ্রহণের পর এটি তার প্রথম সংবাদ সম্মেলন। বুধবার দুপুরে ৪০তম আইজিপি হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন তিনি। আইজিপি এ কে এম শহীদুল হকের স্থলাভিষিক্ত হলেন জাবেদ পাটোয়ারী। শহীদুল হক স্বাভাবিক অবসরে গেছেন।

নতুন আইজিপি বলেন, পুলিশিং সারা বিশ্বে একটি অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং পেশা। বাংলাদেশের মতো একটি ক্রমবিকাশমান অর্থনৈতিক প্রেক্ষাপটে পুলিশিং আরো বেশি চ্যালেঞ্জিং। দেশের অভ্যন্তরিণ শান্তি-শৃ্ঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা, বাংলাদেশকে অধিকতর বাসযোগ্য ও কর্মযোগ্য করে গড়ে তোলা, দেশের উন্নয়ন, অগ্রগতি ও বিনিয়োগ উপযোগী আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ পুলিশ ইতোমধ্যেই অনেক পথ পাড়ি দিয়েছে। আরো অনেক পথ পাড়ি দিতে হবে।

জঙ্গিবাদ ও মাদককে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে উল্লেখ করে জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ পুলিশ ইতোমধ্যেই ইর্ষনীয় সাফল্য অর্জন করেছে। এর জন্য ৮ জন পুলিশ সদস্য আত্নত্যাগ করেছেন। অনেকেই গুরুতর আহ্ত হয়ে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন।

তিনি সাংবাদিকদের উদ্দেশে বলেন, মাদক প্রতিরোধে আমি আপনাদেরকে পাশে চাই। মাদকের ছোবল থেকৈ দেশবাসিকে বিশেষ করে তরুণদের রক্ষার জন্য আমরা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে অন্যান্য আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় করে কাজ করব।

পুলিশে ৩২ বছর কাটিয়েছেন এবং বাকি জীবনেও আগের মতো নীতি ও আদর্শের ক্ষেত্রে অটল থেকে দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য কাজ করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন নতুন এই পুলিশ প্রধান।