বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে তথ্য সুরক্ষা দিবসের নানা আয়োজন

রোববার (২৮ জানুয়ারি) আন্তর্জাতিক তথ্য সুরক্ষা দিবস উপলক্ষে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে নানা কর্মসূচি পালন করা হয়েছ। সাইবার ক্রাইম অ্যাওয়ারনেস ফাউন্ডেশনের বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় চ্যাপ্টার এসব আয়োজন করে। কর্মসূচির নেতৃত্ব দেন চ্যাপ্টার আহ্বায়ক মুজাহিদুল ইসলাম বিজয় ও সদস্য সচিব জালাল উদ্দিন রুমি।

কর্মসূচীর প্রথমাংশে বিভিন্ন পোস্টারের মাধ্যমে তথ্য নিরাপত্তা বিষয়ে শিক্ষার্থীদের সচেতন করা হয়। বিকাল ৩টায় ‘প্রাইভেসি টক’ শীর্ষক আলোচনা সভায় ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষা বিষয়ক আলোচনা করা হয়।

মুজাহিদুল ইসলাম বিজয় বলেন “আমরা তরুণরা বেশি তথ্য নিরাপত্তাহীনতা ভুগি। আমাদের ছোট ছোট ভুলের কারণে বিশাল বিপদ ডেকে আনি। সাইবার অপরাধ নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজন তথ্যের সু্ষ্ঠু ব্যবহার, সাইবার নিরাপত্তা সংক্রান্ত জ্ঞান ও সচেতনতা।

এছাড়া তিনি সাইবার ক্রাইমের উৎপত্তি, কিভাবে এটি ছড়ায় এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন।

প্রতি বছর এই দিবস উপলক্ষে ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষার প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে সচেতনতা তৈরিতে বিশ্বে নানান রকম ক্যাম্পেইন চালানো হয়।২০১৮ সালের জন্য দিবসটির থিম নির্ধারণ করা হয়েছে ‘ব্যক্তিগত গোপনীয়তার প্রতি সম্মান প্রদর্শন, তথ্য সুরক্ষা ও আস্থা প্রতিষ্ঠা’ ( Respecting Privacy, Safeguarding Data and Enabling Trust )। ১৯৮১ সালে ইউরোপের বৃহৎ সংগঠন ‘কাউন্সিল অব ইউরোপে’ কনভেনশন ১০৮ স্বাক্ষরের মধ্যদিয়ে বিশ্বে প্রথম ডাটা প্রাইভেসি ডে বা তথ্য সুরক্ষা দিবস উদযাপন শুরু হয়।

এ বছর যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল সাইবার সিকিউরিটি অ্যালায়েন্সের (এনসিএসএ) নেতৃত্বে ক্রমবর্ধমান বৈশ্বিক এই ক্যাম্পেইনের অফিসিয়াল চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশে সাইবার সচেতনতা নিয়ে কাজ করা স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সাইবার ক্রাইম অ্যাওয়ারনেস ফাউন্ডেশন। সংগঠনটি ‘ডাটা প্রাইভেসি ডে ২০১৮ চ্যাম্পিয়ন’ হিসেবে স্বাক্ষর করে দিবসটির প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হলো। এর মাধ্যমে ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষা সচেতনতায় বিশ^ব্যাপী সংগঠনগুলো যৌথভাবে যে দায়িত্ব ভাগাভাগি করে নেয়- চ্যাম্পিয়ন হিসেবে সাইবার ক্রাইম অ্যাওয়ারনেস ফাউন্ডেশন সেই মূলনীতিকে স্বীকার করেছে এবং তাতে সমর্থন জানিয়েছে।