১২২টি বিকাশে ৫৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নিলো প্রতারক

আপনি পুরস্কার জিতেছেন। কিছু নিয়ম মেনে পুরস্কারটি সংগ্রহ করতে পারেন। এজন্য প্রথমে আপনার কিছু ব্যক্তিগত তথ্য যেমন: নাম, পিতার নাম, জন্মতারিখ, ঠিকানা, এনআইডি ইত্যাদি প্রয়োজন। এরপর অন্যান্য প্রক্রিয়া…। -এমন প্রলোভন দেখিয়ে ৫৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্র। ১২২টি বিকাশ অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করা হয়েছে পুরো প্রক্রিয়ায়।

এই চক্রের মূল হোতাকে গ্রেফতারের দাবি করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। শনিবার ফরিদপুর জেলাধীন ভাঙ্গা থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার নাম মোঃ সুমন শিকদার(২২)। তার বাবার নাম সরোয়ার শিকদার।

এই অভিযানের নেতৃত্ব দেন সিআইডির ঢাকা মহানগর পূর্বের ডেমরা ইউনিটের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. আকসাদুদ জামান।

সিআইডি জানায়, গ্রেফতারের সময় পাঁচটি বিকাশ অ্যাকাউন্ট নম্বর সম্বলিত বাংলালিংক সিম এবং দেশের বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন লোকের নিকট হতে প্রতারণামূলকভাবে অর্জিত পাঁচ লাখ টাকা জব্দ করা হয়।

প্রতারক চক্রটি প্রথমে বিভিন্ন মোবাইল ফোন কোম্পানির গ্রাহকদের নিকট লটারিতে গাড়ি, বাড়ি, অর্থ পুরষ্কার প্রাপ্তির কথা বলে টোপ ফেলে বিশ্বাস অর্জন করে। এরপর ওই পুরষ্কার নিতে হলে বিভিন্ন শর্ত-সাপেক্ষে অগ্রীম টাকা পরিশোধের নামে বিকাশের মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নেয়। এভাবে তারা দীর্ঘদিন যাবৎ সাধারণ মানুষের নিকট হতে লাখ লাখ টাকা অবৈধভাবে হাতিয়ে নিচ্ছিলো। প্রতারক চক্রটি দ্বীন মোহাম্মদ (৫০) নামে এক ব্যক্তির কাছ থেকে ১২২ টি বিকাশ একাউন্টের মাধ্যমে ৫৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নিলে এই বিষয়ে তিনি একটি মামলা করেন। পরে মামলাটি তদন্ত করতে গিয়ে সিআইডি সুমন শিকদারকে গ্রেফতার করে।

(এই সংবাদটি প্রচার করে আপনিও সাইবার সচেতনতায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারেন)