’গুজব রটানোর’ অভিযোগে বুয়েটের শিক্ষার্থী গ্রেফতার

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব রটিয়ে সহিংসতার আহবান জানানোর অভিযোগে আরো একজনকে গতরাতে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের সাইবার অপরাধ তদন্তকারী দল। গ্রেফতার দাইয়ান আলম (২২) বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র । এর আগে ভুয়া নিউজ প্রচারের দায়ে অনলাইন পত্রিকা জুম বাংলার সিইও ইউসুফ চৌধুরীকে (৪০) গ্রেফতার করা হয়।

এই দুজনকে ৭ দিনের পুলিশ রিমান্ড চেয়ে মহানগর মুখ্য হাকিমের কাছে পাঠানো হয়েছে। অভিযানে নেতৃত্ব দেয়া ডিএমপির এডিসি নাজমুল ইসলাম বৃহস্পতিবার এসব তথ্য জানিয়েছেন।

পুলিশের এ কর্মকর্তা জানান, গত ০৮ আগস্ট রাত ৮টা – সাড়ে ১১টা ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে ভুয়া নিউজ প্রচার এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব রটিয়ে সহিংসতার আহ্বান জানানোর অভিযোগে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ জানায়, দাইয়ানকে রমনা থানার ০৫/০৮/২০১৮ তারিখের ৮ নম্বর মামলায় এবং ইউসুফকে ০১/০৮/২০১৮ তারিখের ১ নম্বর মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতারের সময় তাদের কাছ থেকে কম্পিউটার, মোবাইল, ল্যাপটপ জব্দ করা হয় এবং ‘অপপ্রচারে’ ব্যবহৃত ফেসবুক আইডি ও ফেসবুক গ্রুপগুলোর নিয়ন্ত্রণ নেয়া হয়েছে।

বুয়েটের ছাত্র দাইয়ান ফেসবুকে সরাসরি ভিডিও সম্প্রচার ও পোস্টসহ নানা বিষয় পোস্ট ও শেয়ার করে চলমান স্বাভাবিক আন্দোলনকে সহিংস করতে ভূমিকা রাখে বলে দাবি পুলিশের। রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করলে এদের আসল উদ্দেশ্য জানা যাবে বলে জানান এডিসি নাজমুল।

পুলিশের সাইবার অপরাধ তদন্তকারী দল জানায়, ‘জুম বাংলা’ নামের অনলাইন পত্রিকার মাধ্যমে অনেক দিন ধরে হলুদ সাংবাদিকতা হচ্ছে। কোনো তথ্য প্রমাণ ছাড়াই ভুয়া নিউজ প্রচার করে সাংবাদিকতার নীতিনৈতিকতার বাইরে গিয়ে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন সংবাদ প্রচার করে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে। সম্প্রতি চলমান আন্দোলনের সময় সে পুলিশের অযৌক্তিক ও অপ্রাসঙ্গিক ছবি প্রকাশ করে আন্দোলনকে উস্কে দেয়।

অনলাইনে গুজুব কারীদের বিরুদ্ধে সাইবার অপরাধ বিভাগের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানায় ডিএমপি।